পেশা ও নিশ্চয়তার কেন্দ্রস্থল
“ এলআইসিবসিরহাট”-এ তোমাকে স্বাগত:

রোদপড়েআছেমাঠে।
মাঠমানেজমি।
জমিমানেএকদিনধানউঠবেঘরে।

আমি ঠিক সেই দিনটি হতে চাই। সেই দিনটি।
যা ঘটে ঘটুক তারপরে।

—- জয়গোস্বামী।

প্রথেমেই একটি কথা বলি, এখানে, একমাত্র লক্ষ হল কাজ। আর এ কাজের জগৎ-ই তোমার সাম্রাজ্য। তোমার বিচরণক্ষেত্র। যেখানে তুমি তোমার অধীশ্বর। তুমি-ই বস। তোমার কাজ এই পারস্পরিক আলাপচারিতার মধ্যে দিয়ে অপরকে চেনা। চিনে নেওয়া। আর এ সব কিছুই, এপথের, প্রতিটি মুহূর্তের নির্মাতা তুমি-ই।
আরও একটু ছোট করে, সহজভাবে বলি, বুঝতে পারবে। সারাদিন প্রচুর মানুষের কাছে যাও। প্রচুর মানুষের সাথে কথা বলো। সুচিন্তিত, সুনির্দিষ্ট একটি লিস্ট তৈরি করো। প্ল্যান কর। অপর দিকের মানুষটি বুঝে পলিসি বোঝাও। কখনও উল্টোদিকের ভদ্রলোকটি কি বলছেন শুধু শোনো। ব্যর্থ হলেও ধৈর্য রাখো। ব্যস , সাফল্য তোমার হাতের মুঠোয়।

মনে রাখতে হবে এখানে ‘সাফল্য’ একটা নেশা। আর এই সাফল্যের নেশাই তোমাকে তোমার চারিদিকে একটা প্রতিযোগিতার আবহ তৈরি করতে সাহায্য করে। যেখানে অনেক সময় প্রতিযোগী তুমি। প্রতিদ্বন্দিও তুমি।

এমনিতে দেখবে অফিসে, প্রতিমাসে, কিছু
‘ওয়ান ডে’ থাকে। প্রচুর কম্পিটিশন থাকে। প্রাইজেস থাকে। প্রাইজ বলতে ট্রফি বা মেমেন্টো বলতে পার। ক্যাশ অ্যাওয়ার্ড মানে নগদ টাকাও থাকে। উইনিং ট্রিপ মানে প্রতিযোগিতায় জিতে বাইরে ঘুরতে যাওয়ার হাতছানিও থাকে। কখনও সেটা বিদেশেও হতে পারে। এছাড়া, ফাইভ-স্টার হোটেলগুলিতে, লাঞ্চ বা ডিনারতো আছেই। আরও আছে। কত বলবো। একেবারে যাকে বলে সীমাহীন বা এন্ডলেস বেনিফিটস।
আর বুঝতে পারছ এগুলি একটু একটু করে নিয়মিত ভাবে, অ্যাচিভ করা মানে তোমার সামনে ক্লাব-মেম্বারশিপের দরজা খুলে যাওয়া। আর এই ক্লাব-মেম্বারশিপ মানে অন্য একটা দুনিয়া। হ্যাঁ, টেনশন একটা থাকবে। যেমন সব কাজেই থাকে। কিন্তু লাইফ হবে অনেক কমফোর্ট আর কালারফুল। সম্মানেরও। নিজস্ব অফিস হবে। তাও এল আই সি-র স্পনসরশীপে। নিজস্ব গাড়ি হবে অত্যন্ত লো বা জিরো পার্সেন্ট ইন্টারেস্টে। তোমার মেডিক্লেম থাকবে। গ্রাচুইটি থাকবে। এমনকি পেনশনও থাকতে পারে।

শেষ কথা বলি একজন পিতা যেমন করে তার সন্তানকে প্রতিপালন করেন। বড় হওয়ার সাথে সাথে তার চলার পথকে চিহ্নিত করে দেন। বাইরের সমস্ত ঝড়, জল, প্রতিকূলতা থেকে তাকে রক্ষা করেন। আগলে রাখেন। একজন মেন্টর ঠিক তেমনি একটা টিমের অস্তিত্ব। তার জাগরণ। প্রত্যেকটি এজেন্ট যেখানে তাঁর সন্তান তুল্য। *প্রত্যেকটি দিকনির্দেশ যেখানে তাদের চলার পথের পাথেয়। তাদের উন্নতির, তাদের অগ্রগতির ধারক।

তাই, আমাদের প্রয়োজন তোমাকে। তুমি এসো।
‘এল আই সি বসিরহাট’- এ যোগ দাও। নিজেকে প্রতিষ্ঠিত কর।